এক কিলোগ্রাম আলুর দাম ৫৬২ টাকা। এক কিলোগ্রাম চাল ৭০২ টাকা। প্রতি কেজি গাজর ৮৪৩ টাকা। পনির ২১০৯ টাকা আর প্রতি কেজি মাংস ২৬৭২ টাকা। বাংলাদেশের বাজারে গেলে এমন আজব আকাশছোঁয়া দামের মুখোমুখি হতে হবে না আপনাকে। কিন্তু ভেনেজুয়েলার বাসিন্দাদের পড়তে হচ্ছে এমনই পরিস্থিতিতে।

জানা গেছে, সেদেশে মুদ্রাস্ফীতির ভয়াবহ রাক্ষুসে থাবায় চরম দুরবস্থা সাধারণ নাগরিকদের দৈনন্দিন জীবনযাপনে। বাংলাদেশি টাকায় এখন এমনই দাম এই নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের। ভেনেজুয়েলার মুদ্রা বলিভার। পরিস্থিতি এমন দাঁড়িয়েছে একটা মুরগির দাম দেড় কোটি বলিভারে পৌঁছে গিয়েছে!

লাতিন আমেরিকার এই দেশে দেখা দিয়েছে তীব্র আর্থিক মন্দা। আইএমএফ (ইন্টারন্যাশনাল মনিটরি ফান্ড)-এর হিসেব অনুযায়ী, এ বছর সেদেশের মুদ্রাস্ফীতির হার দশ লাখ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে। কাজেই নলা যায়, পরিস্থিতি খুব ঘোরতর। গত সোমবার ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরাই মুদ্রাস্ফীতির মোকাবিলায় নতুন নোট বাজারে এনেছেন। ঘোষণা করেছেন নতুন অর্থনীতি।

Leave a Reply

  • (not be published)