দিনাজপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে হত্যা ও হলি আর্টিজেনের জঙ্গি হামলার মূল পরিকল্পনাকারী চিরিরবন্দর উপজেলার রানীরবন্দরে হোমিও চিকিৎসক বিরেন্দ্র নাথ রায়কে গুলি করে হত্যা চেষ্টার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে নব্য জেএমবির সামরিক শাখার প্রধান জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজিব গান্ধী।বুধবার সন্ধ্যায় দিনাজপুরের সিনিয়র চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আরিফুল ইসললামের আদালতে ২ ঘণ্টা বক্তব্যে যাবতীয় অপরাধের দায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এ কথা স্বীকার করেন।দিনাজপুর ডিবি পুলিশের এসআই বজলুর রহমান জানান, ইতোপূর্বে ঢাকায় কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের হাতে আটক হওয়া রাজিব গান্ধীকে দিনাজপুর ডিবি পুলিশ আদালতের মাধ্যমে তিন দিনের রিমান্ডে নেয়। বুধবার রাজিব গান্ধী চিকিৎসক বিরেন্দ্র নাথ রায়কে গুলি করে হত্যার চেষ্টার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বেচ্ছায় এই জবানবন্দি দিতে চাইলে তাকে আদালতে উপস্থাপন করা হয়।এছাড়া কান্তজিউ মন্দিরের যাত্রা পেন্ডেলে বোমা বিস্ফোরণ ও কাহারোল উপজেলার ইসস্কোন মন্দিরে হামলা এবং দিনাজপুর শহরের বিআরটিসি বাস কাউন্টারের সামনে ইতালি নাগরিককে হত্যা চেষ্টায় জড়িত ছিল বলে ডিবির এই কর্মকর্তা জানান।প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালে ৩০ নভেম্বর রাতে দিনাজপুরের রানির বন্দর বাজারে তার হোমিও চিকিৎসালয় বন্ধ করে বাড়ি ফেরার পথে তাকে দুর্বৃত্তরা গুলি করে পালিয়ে যায়। মুমূর্ষ অবস্থায় ডা. বিরেন্দ্র নাথকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে প্রথমে দিনাজপুর মেডিকেলে এবং পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলে প্রাণে বেঁচে যান ।

Leave a Reply

  • (not be published)