৬ই আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ বুধবার, ২০ Jun ২০১৮, ১০:৫০ অপরাহ্ন

ফেসবুকে আসক্তি: স্ত্রীকে খুন করে আত্মহত্যা করলেন স্বামী

স্ত্রীকে খুন করে নিজেও আত্মঘাতী হয়েছেন ভারতের পুণে শহরের বাসিন্দা এক যুবক। ফেসবুকে নিজেদের ব্যক্তিগত জীবনকে সবার সামনে প্রকাশ করে দিতেন স্ত্রী, এই রাগে ২৮ বছর বয়সী স্ত্রী সোনালীকে খুন করেন ৩৪ বছরের রাকেশ গাঙগুর্দে।
খবরে জানানো হয়েছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে একটু বেশিই সরব ছিলেন। দম্পতির ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা, তাদের সম্পর্কের কথা, সন্তান-সম্ভাবনার কথা ফেসবুকের বন্ধুদের বলে বেড়াতেন ফলাও করে। আর তাই দিন দিন বিরক্ত হয়ে উঠছিলেন স্বামী। অবস্থা এমন পর্যায়ে পৌঁছল যে স্ত্রীকে শাস্তি দেওয়া জরুরি মনে করল স্বামী। আর শাস্তি হিসাবে স্ত্রীকে হত্যা করল সে। ফেসবুকে নিজের দৈনন্দিন জীবন নিয়ে নানা পোস্ট দেয়ার ফলে বিভিন্ন অপরাধ এর আগে ঘটলেও তা থেকে খুন আর আত্মহত্যা এই প্রথম বলে পুণের পুলিশ জানিয়েছে।
মৃতদেহ দুটির সঙ্গে পাওয়া গেছে একটি সুইসাইড নোট, যাতে রাকেশ লিখেছেন যে তাদের দাম্পত্য জীবনের অতি ব্যক্তিগত তথ্য সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করে দিতেন তার স্ত্রী। এ নিয়ে অনেকবার সতর্ক করলেও কথা শোনেন নি সোনালী, সে জন্যই এই চরম সিদ্ধান্ত নিতে হল বলে সুইসাইড নোটে লিখে গেছেন রাকেশ গাঙগুর্দে।
মনোবিদরা বলছেন সামাজিক মাধ্যমে নিজের জীবনকে সবার সামনে উন্মুক্ত করে দিয়ে ভার্চুয়াল বন্ধুদের অনুপ্রেরণা নিয়ে বেঁচে থাকার এই প্রবণতা দ্রুত বাড়ছে। অনেকেই ভুলে যাচ্ছেন ব্যক্তিগত তথ্য জনসমক্ষে প্রকাশ করার সীমারেখাটা কোথায়।
পুণে শহরের পুলিশ বলছে তারা একটি বন্ধ ফ্ল্যাট থেকে ওই দম্পতির মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। প্রাথমিক তদন্তের পরে পুলিশ বলছে ২৮ বছর বয়সী স্ত্রী সোনালীকে হত্যা করে নিজেও গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন রাকেশ গাঙগুর্দে।
এ প্রসঙ্গে কলকাতার মনোরোগ বিশেষজ্ঞ ইন্দ্রনীল সাহা বলেছন, এটাকে নার্সিসিজম বলা হয়। এটা এমন এক মানসিকতা, যেখানে নিজেকে জাহির করা, নিজের সব কিছু ভাল বলে মনে করা, আর সেগুলো সবাইকে দেখিয়ে বাহবা পাওয়ার চেষ্টা করে মানুষ। সেই মানসিকতা থেকেই যেমন ঝুঁকি নিয়ে মানুষ সেলফি তুলে পোস্ট করে, তেমনই সব ব্যক্তিগত কথাও প্রকাশ করে দেয় ভার্চুয়াল বন্ধুদের কাছ থেকে লাইকের মাধ্যমে অনুপ্রেরণা পাওয়ার আশায়।
সত্যিকারের আত্মীয়-বন্ধুদের বদলে সামাজিক মাধ্যমের বন্ধুদের কাছ থেকে লাইকের ওপরে ভরসাতেই বেঁচে থাকার এই নতুন নেশার কবলে পড়ছেন বহু মানুষ – এমনটাই মত মনোরোগ বিশেষজ্ঞদের একাংশের।

Logo


© ২০১২ সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

BTL Ltd

ফোনঃ ৯৫৭১৬২৫

সম্পাদক:
যোগাযোগ: ৫১/৫১ এ রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (১০ম তলা), ঢাকা
ই-মেইলঃ news@somoy24.com,
toprealnews24@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি