১৪ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ শুক্রবার, ২৭ এপ্রিল ২০১৮, ০১:০৪ পূর্বাহ্ন

খেজুরের চমকপ্রদ অজানা গুণ

খেজুর পুষ্টিকর একটি ফল। খেজুরের মধ্যে যে কত গুন তা হয়ত আমরা অনেকে জানি না। রোজা রাখার সাথে খেজুরের একটি সম্পর্ক রয়েছে বলে বছরের অন্যান্য সময়ে আমরা অনেকেই খেজুর খাই না। আর এই জন্য আমাদের ঘরে সাধারণত খেজুর জিনিসটি একটু কম আনা হয়। খেজুর পুষ্টিমানে যেমন এটি সমৃদ্ধ, তেমনি অসাধারণ এর ঔষধিগুণ। যৌন শক্তির সাথে খোরমা ও খেজুরের বিশেষ সম্পর্ক রয়েছে। খেজুর চুষলে পিপাসা দমন হয়। সারা বছর খেজুর খাওয়া স্বাস্থের জন্য খুবই উপকারী।

এবার জেনে নিন খেজুরের কিছু গুণ – ১.গবেষণায় দেখা যায়, প্রতিদিন খেজুর খাওয়ার অভ্যাস আমাদের দেহের ইন্টেস্টাইনের ভেতর স্বাস্থ্যের জন্য ভালো প্যাথলজিক্যাল অর্গানিজমের উৎপাদন বৃদ্ধি করে যা ইন্টেস্টাইনের নানা সমস্যা দূর করে।

২. খেজুর ল্যাক্সাটিভ ধরণের খাবার। যাদের কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা রয়েছে তারা খুব সহজেই কোষ্ঠকাঠিন্যের হাত থেকে মুক্তি পেতে পারেন। প্রতিদিন খেজুর খাওয়ার অভ্যাসের মাধ্যমেই এই সমস্যা সমাধান সম্ভব।

৩. খেজুর দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সহায়তা করে। প্রতিদিন খেজুর খাওয়ার অভ্যাস করলে রাতকানা রোগ ভালোও হতে পারে।

৪. যারা রক্তস্বল্পতায় ভুগছে, তারা নিয়মিত খেজুর খেতে পারে। এই ফল শরীরের রক্তের চাহিদা মেটাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। খেজুরে কোনো কোলেস্টেরল এবং বাড়তি চর্বি থাকে না। ফলে আপনি সহজেই খেজুর খাওয়া শুরু করতে পারেন।

৫.কয়েকটা খেজুর খেলেই আপনি দীর্ঘ সময়ের জন্য ক্ষুধা নিবারণ করতে পারেন। এটি পাকস্থলীকে কম খাবার গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করে। আর এই কয়েকটি খেজুর শরীরের শর্করার চাহিদাও পূরণ করবে। ফলে আপনি শর্করাজাতীয় অন্যান্য খাবার না খেলেও খুব একটা সমস্যায় পড়বেন না। খেজুরে আছে এমন সব পুষ্টিগুণ, যা খাদ্য পরিপাক হতে সাহায্য করে এবং কোষ্টকাঠিন্য রোধ করে। ডায়রিয়া হলে কয়েকটি খেজুর খান, বেশ উপকার পাবেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Logo


© ২০১২ সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

BTL Ltd

ফোনঃ ৯৫৭১৬২৫

সম্পাদক:
যোগাযোগ: ৫১/৫১ এ রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (১০ম তলা), ঢাকা
ই-মেইলঃ news@somoy24.com,
toprealnews24@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি