২রা ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ শুক্রবার, ১৭ অগাস্ট ২০১৮, ০৯:২০ পূর্বাহ্ন

বর্তমান সাহিত্য (পর্ব – ৩) ।। রুদ্র আমিন

বর্তমান সাহিত্য, পর্ব – ৩

রুদ্র আমিন

উচ্ছিষ্টজীবী কবি,অমুক আদর্শের কবি, দলকানা কবি এই যদি হয় কবি সাহিত্যিকদের উপাধি তাহলে কে আছেন এদেশের কবি-সাহিত্যিক?

অনেক সময় দৃশ্যত এবং বাস্তবতায় বলে ফেলি এক বনে দুই বাঘ বসত গড়তে পারে না। থাকতে পারে না। এমন কথাটিও অনেক সময় মাওলানাদের ক্ষেত্রে বলে ফেলি দু’জন মাওলানা এক সাথে থাকে পারে না। এমন দিক গুলো এখন দেখতে পাচ্ছি সাহিত্যিকদের ক্ষেত্রেও একই রাস্তা মেপে হাটছে। সাহিত্যিক হয়ে উঠছে সাহিত্যিকের শত্রু। সবাই যেন পদ দখলের দৌড় দিয়েছে।

গ্রুপিং যেন আজ বড় সাহিত্য। যার গ্রুপ যত শক্তিশালী তার গ্রুপের দাপট ততবেশি। সাহিত্যিকদের নিকট থেকে সাধারন মানুষগুলো সঠিকভাবে বেঁচে থাকার পথ খুঁজে নেবে আর আজ সে জায়গা হয়েছে গ্রুপিং নির্ভর। বড় মাপের সাহিত্যিকরা তার সমকক্ষের সাহিত্যিক বন্ধুদের ঘৃণা করে। কার কি দোষ সেগুলোকে প্রকাশ করতে মরিয়া। গুনের কথাগুলো নর্দমায় ফেলে রাখে।

দু’জন বন্ধুকে একই অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রণ করা হলে দু’জনকে কি একই পদবীতে বসানো যাবে ? যাবে না কিন্তু দু’জনই সম্পর্কে ঘনিষ্ঠ বন্ধু। এই বন্ধুত্বের মানে কি? যদি কেউ কাউকে সম্মান দিতে না পরে। এই সকল সাহিত্যিক মনের মানুষগুলোর থেকে কি-ই-বা শেখার আছে সাধারনদের, হিংসা-বিদ্বেষ ছাড়া।

বন্ধু হয়েই যদি বন্ধুর শত্রু হতে হয় তবে কেন বন্ধু বানাতে হবে। যতই দিন গড়াচ্ছে ততই কেন জানি ক্ষমা উঠেই যাচ্ছে। যে যত বড়ই হোক না কেন যদি তার ভেতর ক্ষমার কোন চিহ্ন না রাখে তাহলে সে কোনদিনই বড় হতে পারে না। ক্ষমাই মানুষকে মহৎ করে। ক্ষমাই কোন কোন অপরাধীকে মহৎ মানুষে পরিণত করে।

আমাদের মতো গণ্ডমূর্খদের কবিতা লিখে কি লাভ? কবিতায় কি পেট ভরে ভাত দিবে ? আসলে আমরা, না ভুল হবে আমরা নয় আমি যা লিখি অলস সময় পাড়ির রাস্তা আরও প্রসস্থ করার জন্যই লিখি। যদি আগে চটি লিখতাম তাহলে মনে হয় খ্যাতি বেড়ে যেতো। চারপাশের বড় বড় সাহিত্যিকরা দেখি ৫-৮ জনের বেশি কবি খুঁজে পায় না। তাহলে এতো এতো গ্রুপের সম্মাননা এগুলো কোথায় দেয়া হচ্ছে ?

সাহিত্যিক হয়ে সাহিত্যিককে এমনও উক্তি করেছেন যে সেই সকল বক্তব্য সত্যি সাকের করাতের মতোই মানুষের মনকে ধবংসের পথে ফেলে দেয়। উচ্ছিষ্টজীবী কবি, যুবলীগ কবি, দলকানা কবি এই যদি হয় কবি সাহিত্যিকদের উপাধি তাহলে কে আছেন এদেশের কবি-সাহিত্যিক? কেউ কি চোখে পড়ে, না আমার চোখে পড়ে না। আর আমার চোখে পড়েও বা কি লাভ। অন্ধরা কতটুকুই বা পথ চলে হাটতে পারে। তবে দোষারোপ করেও অনেককে এভারেষ্ট জয় করে ফেলে।

Logo


© ২০১২ সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

BTL Ltd

ফোনঃ ৯৫৭১৬২৫

সম্পাদক:
যোগাযোগ: ৫১/৫১ এ রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (১০ম তলা), ঢাকা
ই-মেইলঃ news@somoy24.com,
toprealnews24@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি