১২ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১১:৪৬ অপরাহ্ন

রাতের আঁধারে ঢাকা!

চুপচাপ নিঃশব্দ যান্ত্রিক কোলাহলে বেদুঈন যুবকের পথ চলা

স্বপ্ন ভাঙ্গা মনে ছুঁটলো রাত বিরাতে সদরঘাঠে, হঠাৎ করেই অনেক দিন পর বুড়িগঙ্গাকে দেখা রাত তখন সাড়ে বারোটা।

দিনের আলোর মতই লাগছে পুরান ঢাকার জগ্ননাথ  ইউনির্ভারসিটির থেকে সদরঘাঠের রাস্তা, বেদনা মুখর পাষান্ড হৃদয়ে গিয়ে বসলো ঘাঠের পাড়ে হঠাৎ করেই তার মনে হলো একটু ঘুমাবে ভিতরে ডুকতেই শুরু হলো বরিশালের লঞ্চের মত  এক পাবলিকের নাক ডাকা।

থুর ছাতা এর মধ্য ঘুমাবে কেডা?

থুর  থুর

এই মামা ঘুমানোর কোন বেঞ্চ আছে দায়িত্বরত কর্মকতা খুঁজে দ্যাখো গিয়ে!

গিয়ে দেখলো যে যার মত ঘুমিয়ে পড়েছে ফাঁকা নেই একটু জায়গা থুর ঘুমাবোই না।

ওপাশে চায়ের দোকান খোলা আছে শুরু হলো চায়ের সাথে সিগারেটের পাল্লা খোলা আকাশের নিচে হিমেল হাওয়া জমিয়ে যাচ্ছে শরীল তবু মনের আগুন দাউ দাউ করে জ্বলছে।

হঠাৎ করেই অচেনা লোকের সাথে কথাবার্তা

মাঝ খানে কাছের লোকজন কে ফোন করে উল্টাপাল্টা সত্য বলা

অপরিচিত লোকের সাথে হয়ে গেলো বন্ধত্ব একদিনে জন্ম হলো বিশ্বাস কেউ কাউকে চিনে না অথচ বলা হলো মনের অনেক অজানা অচেনা কথা।

হঠাৎ করেই লেগে গেলো পাগলে পাগলে জামেলা, বদ্ধ পাগল এক পাগলীর কোমড়ে দিলো আস্ত লাঠি দিয়ে কোমড় ভেঁঙ্গে  আরেক পাগল কে মেরে  ক্ষেপিয়ে তুলেছে   সবাই তাঁকে ধরার জন্য  দৌঁড়াচ্ছে, হুলস্থুল হলে গেলো সদরঘাঠের সি এন জি স্ট্যান্ড জুরে।

মাঝ খানে কোপত কোপতির জোড়া ধরে আটকীয়ে রেখেছে পুলিশ মামা তার  বলে বউ স্বামী না তারাই অবৈধ্য প্রেমিকা প্রেমিকা নেই কাবিন নামা।

হঠাৎ করে শুনা গেলো ছেলে হারানোর বেদনা গাবতলী থেকে এসে এক ব্যাক্তি টিভিতে সাক্ষাৎকার দিচ্ছে তার ছেলে হারিয়ে গেছে।

ভোর তখন সাড়ে চার টা চুপচাপ নতুন বন্ধু কে বিদায় জানিয়ে পথিকের পথ চলা

মাঝ পথে পতিতা এই শোন তুই কি কাম করো

থুর কি বলো

না তুমি কি কাম করো

উল্টাপাল্টা পরিচয় দিয়ে দিলো পথিক একটা তারপর সামনে দিকে রাতের শেষে ভোরে হওয়ার পথে পথচলা মাঝ পথে পুলিশি বাঁধা

এই ছেলে কোথায় যাও?  সামনে যাবো

মাল খেয়েছো?

না

চেকআপ

সাথে যা পেলো একটা বাটুন আলা মোবাইলে ১০-১৫ টা টেকা আর দিয়ারশালাই আর টিস্যু

ঐ বেটা কই যাবি

সামনে অফিসে

অফিস কি তোর জন্য খুলে বসে আছে?

না

খুলবে

যা বেটা মালটাল খেয়ে দেয়ে উল্টাপাল্টা কথা বলছে

যা বাসায় গিয়ে ঘুমা।

তারপর বাঁধা পেয়ে ফিরে আসা মাঝ রাতের পতিতার সাথে আবার দেখা ঐ কাম করবি

থুর শ্যালা

তরিগড়ি এসে করে আবার এক চা আলা মামার সাথে বসে বসে আড্ডা

সত্য কথা বলে মামা হাসানোর বহু প্রতেষ্টার গম্ভীর মামার মুখ থেকে হাসির ঝিলিক ছড়িয়ে পড়লো ফিসফাস শব্দতে,

হঠাৎ করেই সামনে এসে দাঁড়িয়ে অচেনা এক ব্যাক্তি কথার মাঝে কথা জ্ঞান দিবার প্রচেষ্টা উভয় উভয়ে জ্ঞান দেওয়া হয়ে গেলো তার সাথেই বন্ধত্ব

ভোর হলো বাসে চড়ে অফিসের আসলো বেদুঈন যুবক

মাবুদ মওলা মাফ করো যুবক কে

হঠাৎ এক মুরব্বির হুজুরের সাথে দেখা এ ছেলে নামায পড়েছে

না

যাও পড়ে  আসো

সারা রাত রাস্তায় কাঁটিয়েছি কাপুর চুপুর ঠিক নেই

একটু পানি দিয়ে ধৌঁত করে নাও

এখন পড়বো না

হুজুরে শুরু হলো দোয়া

হে আল্লাহ ও নেশা করেছে

ওর বাপ মায়ের কত আদরের সন্তান ও

ওরে তুমি নেশা থেকে বাঁচাও ওর কলিজার উপর শান্তি দাও

আগেই বলেছিলাম বেদুঈন যুবক চা সিগারেট ছাড়া আর কিছু খাই না।

এস এম জাহান

সময় নিউজ ২৪ ডট কম

পল্টন ময়দান ঢাকা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Logo


© ২০১২ সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

BTL Ltd

ফোনঃ ৯৫৭১৬২৫

সম্পাদক:
যোগাযোগ: ৫১/৫১ এ রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (১০ম তলা), ঢাকা
ই-মেইলঃ news@somoy24.com,
toprealnews24@gmail.com

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি